Breaking »

ভারতের আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা: চীনের কড়া প্রতিক্রিয়া

ডেস্ক রিপোর্ট:

ভারতের আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার বিষয়ে কঠোর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে চীন। চীনের রাষ্ট্রীয় দৈনিক গ্লোবাল টাইমস আজ এ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। ‘ইন্ডিয়া বিং সুইপ্ট বাই মিসাইল ডিইল্যুশন’ বা ‘ক্ষেপণাস্ত্র মোহতে আক্রান্ত ভারত’ শীর্ষক মন্তব্যধর্মী প্রতিবেদনে দৈনিকটি বলেছে, “ভারত আজ দীর্ঘ পাল্লার অগ্নি-৫ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার এ ক্ষেপণাস্ত্র চীনের বেশিরভাগ বড় শহরে তা আঘাত হানতে পারবে। এ পরীক্ষার মাধ্যমে ভারত বিশ্বের আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রের অধিকারী দেশগুলোর অন্যতম হতে চাইছে যদিও এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা সাধারণতঃ ৮ হাজার কিলোমিটারের বেশি হয়।”
দৈনিকটি আরো বলেছে, “ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তিতে দ্রুত এগিয়ে চলেছে ভারত। দেশটি গত বছর সাড়ে তিন হাজার কিলোমিটার পাল্লার অগ্নি-৪ ক্ষেপণাস্ত্র সফলভাবে পরীক্ষা চালিয়েছে। ভারতের জনগণ অনেক আগে থেকেই দেশটির সামরিক অগ্রগতির বিষয়টি চীনের সঙ্গে তুলনা করছে।”
ভারতের সামরিক অগ্রগতির পথে আর তেমন কোনো বাধা নেই- উল্লেখ করে দৈনিকটি লিখেছে, “ভারতের জনগণ এ ধরনের কাজের প্রতি সমর্থন দিচ্ছে। নয়াদিল্লি পরমাণু ও ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত চুক্তিগুলোকে আমলে না নিলেও পশ্চিমা দেশগুলো এ ব্যাপারে নিরব রয়েছে। ২০১২ সালে ভারতের সামরিক ব্যয় ১৭ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু পশ্চিমা দেশগুলো এ বিষয় কোনো মন্তব্যই করেনি।”
ভারত আবারো বিশ্বের বৃহত্তম অস্ত্র আমদানিকারক দেশে পরিণত হয়েছে- উল্লেখ করে
দৈনিক গ্লোবাল টাইমস আরো বলেছে, “নিজের শক্তিকে বাড়িয়ে দেখানো উচিত হবে না ভারতের। ভারতের ক্ষেপণাস্ত্র চীনের বেশিরভাগ অংশে আঘাত হানতে পারলেও বেইজিং-এর সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে নয়াদিল্লি কিছুই অর্জন করতে পারবে না।” দৈনিকটি আরো বলেছে, “ভারতের পরিষ্কার ধারণা থাকা উচিত যে, চীনের পরমাণু শক্তি ভারতের চেয়ে অনেক বেশি এবং নির্ভরযোগ্য। ভবিষ্যতে ভারতের সামগ্রিক অস্ত্র প্রতিযোগিতায় চীনের সঙ্গে পেরে ওঠার কোনোই সম্ভাবনা নেই।”
দৈনিক গ্লোবাল টাইমস পশ্চিমা মিত্রদের অতিরিক্ত গুরুত্ব না দেয়ার জন্য নয়াদিল্লির প্রতি আহবান জানিয়ে বলেছে, “চীনকে ঠেকানোর জন্য দীর্ঘ পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার এবং চীনের সঙ্গে শত্রুতা উস্কে দিলে ভারত ভুল করবে।”
দৈনিকটি বলছে, “চীন ও ভারতের যতোটা সম্ভব বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখা উচিত; যদি তা নাও হয় তবে এক অন্যকে সহ্য করা উচিত এবং কি করে সহাবস্থান করা যায় তা শেখা উচিত।” ভারত ও চীনকে ক্ষমতার ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির দিকে ঝুঁকে পড়া উচিত হবে না বলে দৈনিকটি মন্তব্য করেছে।
দৈনিক গ্লোবাল টাইমসের প্রতিবেদনের শেষে মন্তব্য করা হয়েছে, চীন আশা করছে ভারত সহনশীলতা বজায় রাখবে এবং তাতে দু’দেশেরই লাভ হবে।
এদিকে, ভারতের আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র ন্যাটোর জন্য হুমকি নয় বলে মন্তব্য করেছে এ সামরিক জোট।

 রিপোর্ট »বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল , ২০১২. সময়-১০:৩৮ pm | বাংলা- 6 Boishakh 1419
WEBSBD.NET
রিপোর্ট শেয়ার করুন  »
Share on Facebook!Digg this!Add to del.icio.us!Stumble this!Add to Techorati!Seed Newsvine!Reddit!
EDITOR;ABUL HOSSAIN LITON, DHAKA OFFICE; NAHAR MONZILl,BOX NAGAR,DEMRA,DHAKA.OFFICE;MAHESHPUR,JHENAIDAH,BANGLADESH. Copyright © 2011 » All rights reserved http/shesherkhobor.com, MOB: 8801711245104,Email:shesherkhobor@gmail.com 
☼ Provided By  websbd.net  » System  Designed by HELAL .
GO TOP