Breaking »

Warning: include(/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

Warning: include(): Failed opening '/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php' for inclusion (include_path='.:/usr/lib/php:/usr/local/lib/php') in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

মহেশপুরে কশাইখানা খ্যাত ক্লিনিক গুলোতে ডাক্তার নার্স বাদে চলে চিকিৎসা ,প্রশাষন নিরব ।

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি ঃ ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলায় ব্যঙ্গের ছাতার মত গড়ে তোলা হয়েছে ক্লিনিক । উপর মহলে নজরানা দিলেই লাইসেন্স না থাকলেও মানুষজন ধরে এনে ছাগল গরম্ন ফাড়ার মত অপরেশন চালিয়ে  যাচ্ছে। জানা গেছে এ   উপজেলায় ৩৪টির মত প্রাইভেট হাসপাতাল এন্ড ডায়গনিষ্টিক সেন্টার গড়ে তোলা হয়েছে ।সিভিলসার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে  উপজেলায় ১৩টির লাইসেন্স Moheshpur Picture 06.09.2015আছে। তবে আর যাদের লাইসেন্স নেই বাদবাকিরা  উপরের কর্তাদের নজরানা ও কেউ কেউ দরখাসত্ম দিয়ে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের ব্যবসা ।গত মাসে ভৈরবা জননী ক্লিনিকে ১১ জন রোগীকে অপরেশন করা হলে ৫জন রোগী মারা যায়।  বর্তমানে তাদের রেখে যাওয়া সনত্মান দের বাঁচানো কঠিন হয়ে পড়েছে থামছে না তাদের কান্নার রোল । ইতি মধ্যে জননী ক্লিনিক ও লালন শাহ ক্লিনিক বন্ধ করা হয়েছে। ৩আগষ্ট এ ব্যপারে ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুস সালাম কে প্রধান করে  ৩সদস্য তদনত্ম টিম মহেশপুর হাসপাতালে  নিহত ও অসুস্থ রোগীর আত্নিয় ¯^Rb‡`i ¯^vÿvZKvi নিয়েছে। বাংলাদেশে কোন ঘটনা ঘটার পর তড়িঘড়ি করে একটি তদনত্ম টিম গঠন করা হয়।কিন্তু ঘটনা ঘটতে পারে সেটা জানার পরও, আগে ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। উধারণ ¯^iæc  বেশ কিছুদিন পূর্বে  দেনিক নবচিত্র প্রত্রিকায় মহেশপুরের লালন শাহ  ক্লিনিক নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হয়েছিল ।

বাংলাদেশে১৯৮২সালের ১০(৪)আইনে কোন ক্লিনিক বা ডায়গনিষ্টিক সেন্টার গড়ে তুলতে হলে সেখানে সার্বড়্গনিক এক জন সার্জারি ডাক্তার ,একজন অবস ও প্রতি ২ বেড রোগীর জন্য একজন করে প্রশিড়্গিত ডিপেস্নামা নার্স সহ ২০জন ষ্টাফ থাকতে হবে।কিন্তু এ উপজেলার কোন ক্লিনিকে ডাক্তার নার্স তো নেই অপরেশন থিয়েটারের অবস্থা আরো নাজুক।ক্লিনিক মালিক গণ নিজেরা ডাক্তারী ব্যবস্থা পত্র দিয়ে থাকেন ,বড় বড় অপরেশন হলে ডাক্তার ডাকা হয়।এছাড়া তারা  বিভিন্ন অঞ্চলে দালাল নিয়োগ দিয়ে রেখেছে। কোন রম্নগি পাঠালেই তাদের শতকরা ২০ থেকে২৫% কমিশন দেওয়া হয়।দালালরা রোগী পাঠানোর সাথে সাথে রম্নগীর লোকজন  কোন কিছু বলার আগেই  ,ডাক্তার আশরা ফুল ইসলাম নিপু ,ডাক্তার আসাদ ,ডাক্তার রফিকুল ইসলাম,ডাক্তার শুভ,ডাক্তার মহাম্মদবীন হেদায়েত শেতু,ডাক্তার জিকে অধিকারী ডাক্তার গোলাম রহমান দের মধ্য থেকে যে কাউকে তড়িঘড়ি ডেকে  রম্নগীর কাটার ব্যবস্থা করা হয়। ডাক্তার অপরেশন করে  চলে যাওয়ার পর ওই রম্নগির সব ওষুধ ও ব্যবস্থাপত্র দিয়ে থাকেন ক্লিনিক মালিক নিজে ও মাঝে মাঝে নার্সরা ।এমনি হালচিত্র উঠে এসেছে ক্লিনিকগুলোতে । ¯^‡iRwgb পরিদর্শনে কুশাডাঙ্গা গ্রামে মোঃ নজরম্নল ইসলাম গ্রামীন ক্লিনিক নামের ১০ বেডের  একটি ক্লিনিক নীজ বাসার নিচে তৈরি করছে যার রেজি নং ১১৪৮ তিনি জানান তার কোন ডাক্তার নেই অপরেশন করার পর তার পিতা এল এম এফ (পলস্নী) চিকিৎসক  ডাক্তার ফজলুল হক ও তিনি ডি.এম.এফ রম্নগীদের সব ব্যবস্থা করেন। বাবলী নামের এক নন ডিপেস্নামা নার্স আছে বলে তিনি জানান। গুড়দাহ বাজারের পাশে  ডাবলু নামের একব্যক্তি কর্ণফুলি প্রাইভেট হাসপাতাল নামে ২০১১ সালে রেজি নং ২৪৫৩ নামের একটি হাসপাতাল খুলেছে তার ও একই অবস্থা কোন নার্স ডাক্তার নেই দেড় বছর লাইসেন্স নবাইন করতে পরেনি তার পরও ক্লিনিক চলছে।পদ্মপুকুর মোড়ে ১মাস আগে মায়ের দোয়া প্রাইভেট হাসপাতাল প্রতিষ্টা করা হয়েছে। যার পরিচালক জসিম উদ্দিন লাভলু তিনি জানান কোন রেজিষ্টেশন নেই ১০ বেডের অনুমতি চেয়ে দরখাসত্ম করা হয়েছে। দরখাসত্ম করে তিনি অপরেশন চালিয়ে যাচ্ছে। কোন ডাক্তার নেই কেন জানতে চাইলে তিনি জানান আমি  নীজে ডি এম এফ এ অধ্যয়ন রত ।বাকোশপোতা মোড়ে রাসেল মাহামুদ নামের এক কলেজ পড়ুয়া ছাত্র একতা প্রাইভেট হাসপাতাল প্রতিষ্টা করেছে।তার কোন কাগজপত্র নেই তিনি জানান ১০ বেডের জন্য একটি দরখাসত্ম করা হয়েছে।সর্বড়্গনিক ডাক্তার নার্স নেই কেন জানতে চাইলে, বাবু বলেন আমি নিজে মহেশপুরে প্রারাম্রেডিকেলে ভর্তি হয়েছি। ডাক্তার অপরেশন করে চলে যাওয়ার পর অমি রম্নগীদের দেখা শুনা করি । একই বাজারে মনোয়ার হোসেন  ২০১১সালে মা ও শিশু হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেছে যার লাইসেন্স নং ২৭৯১ তার অপরেশন বেডটি হাইডোলিক তবে কোন ডাক্তার নেই । রোজিনা নামক এক নন ডিপেস্নামা নার্স আছে বলে জানান। তিনি বলেন ডাক্তার থাকতে চাই না ।তাই চুয়াডাঙ্গা ফোন করলে সেখান থেকে ডাক্তার এসে অপরেশান করে যায়।মহেশপুর পাতিবিলায় সুবাস নামের এক ব্যক্তি  মহেশপুর প্রাইভেট হাসপাতাল এন্ড শুভ ক্লিনিক  তৈরি করেছে তিনি একই নামে সসত্মা বাজারে আরো একটি ও খালিশপুরে সদ্য বন্ধকৃত লালন শাহ ক্লিনিক এর পাটনার কোন জায়গায় ডাক্তার ও প্রশিড়্গিত নার্স নেই মাঝে মাঝে নিজে ডাক্তার সেজে অপরেশন করলেও তার বিরম্নদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এদিকে শহরের  কোন ক্লিনিকে অপরেশন না করলেও সুবাস প্রতিনিয়ত মান্দারবাড়ীয়া সাব সেন্টারে দায়িত্ব প্রাপ্ত ডাক্তার আসাদ কে অফিস টাইমে ডেকে এনে  অপরেশন চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি দম্ভক্তি ¯^‡i বলে বেড়াচ্ছে সিভিল সার্জন ,প্রশাষন ও সাংবাদিকদের মাসোহারা দিয়ে ক্লিনিক চালাই । আগামী সংখায় দেখুন আরো ক্লিনিক এর সংবাদ।

 রিপোর্ট »সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বার , ২০১৫. সময়-১:১০ pm | বাংলা- 23 Bhadro 1422
WEBSBD.NET
রিপোর্ট শেয়ার করুন  »
Share on Facebook!Digg this!Add to del.icio.us!Stumble this!Add to Techorati!Seed Newsvine!Reddit!
EDITOR;ABUL HOSSAIN LITON, DHAKA OFFICE; NAHAR MONZILl,BOX NAGAR,DEMRA,DHAKA.OFFICE;MAHESHPUR,JHENAIDAH,BANGLADESH. Copyright © 2011 » All rights reserved http/shesherkhobor.com, MOB: 8801711245104,Email:shesherkhobor@gmail.com 
☼ Provided By  websbd.net  » System  Designed by HELAL .
GO TOP