Breaking »

Warning: include(/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

Warning: include(): Failed opening '/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php' for inclusion (include_path='.:/usr/lib/php:/usr/local/lib/php') in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

পেকুয়ায় ৩ইটভাটায় কর্মরত ২৫শিশু শ্রমিককে পড়ার সূযোগ করে দিলেন ইউএনও!

এস.এম.ছগির আহমদ আজগরী,পেকুয়া.

পেকুয়ায় ৩ইটভাটায় কর্মরত ২৫শিশু শ্রমিকের শিÿার অধিকার নিশ্চিত করলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারম্নফুর রশিদ খাঁন। তার হসত্মÿÿপে দীর্ঘদিন ধরে শিÿার আলো বঞ্চিত উপজেলার ৩ইটভাটায় শিশু শ্রমে জড়িত ২৫শিশুকে স্বয়ং নিজ উদ্যোগে তুলে নিয়ে বিদ্যালয়ে ভর্তি করিয়ে শিÿার অধিকার বাসত্মবায়ন করার দৃষ্টামত্ম গড়েছেন।

গত ১২ফেব্রম্নয়ারী বৃহস্পতিবার উপজেলার টইটং ও বারবাকিয়া ইউনিয়নে গড়ে উঠা ৩ইটভাটায় সরোজমিন পরিদর্শনে গিয়ে সেখানে কর্মরত ২৫শিশু শ্রমিককে নিজেই সাথে নিয়ে স্থানীয় উত্তর পূর্ব সোনাইছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীতে ভর্তি করে মহৎ পরিকল্পনার প্রতিফলন ঘঠান।   উলেস্নখ্য, সম্প্রতি স্থানীয় সংবাদকর্মীরা তাদের প্রকাশনায় ‘‘পেকুয়ায় সংরÿÿত বনাঞ্চল পুড়ছে ইটভাটার আগুনে; অবাধে চলছে শিশুশ্রমও’’ শীর্ষক শিরোনামে সচিত্র সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশ ও প্রচার হয়। আর তারই জের ধরে পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরেজমিনে ওই ইটভাটাগুলো পরিদর্শনে যান। এসময় সেখানে শিশুশ্রমের প্রমাণ পান। এসময় তিনি ওই ইটভাটা মালিকদের তাদের প্রতিষ্টানে তাৎÿনিক শিশুশ্রম বন্ধসহ শিÿা সুবিধা বঞ্চিত কোমলমতি শিশুদের শিÿার আলোয় উদ্ভাসিত করতে তাদের বিদ্যালয়ে ভর্তির নির্দেশ দেন। পেকুয়ার লোকসমাজে বর্তমানে সৎ, কর্মট, নিষ্টাবান ও বিচÿন ইউএনও হিসাবে পরিচিত জনাব মোঃ মারম্নফুর রশিদ খাঁন সেখানে কর্মরত ওই ২৫শিশু শ্রমিকদের  বিদ্যালয়ে ভর্তি করে দিয়ে তাদের শিÿার অধিকার ফিরিয়ে দেন।

           সেই সময় স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ওই ইটভাটাগুলোয় সরেজমিনে পরিদর্শনে গেলে বিষয়টি নিয়ে তাৎÿনিক সচিত্র সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশ করান। ওই সংবাদ প্রতিবেদনটি গণমাধ্যমে প্রকাশ ও প্রচারিত হলে টনক নড়ে প্রশাসন ও সচেতন মহলের। ফলে, পেকুয়ার ইউএনও সেখানে সরোজমিন পরিদর্শন করে এব্যবস্থা গ্রহণ করেন।

         গতকাল ১৬ফেব্রম্নয়ারী সোমবার বিষয়টির সত্যতা জানতে এপ্রতিবেদক ও স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ফের সরোজমিন পরিদর্শনে যান। পরিদর্শনকালে সেখানে তাদের যথারীতি অন্য ছাত্র-ছাত্রীদের মতো ক্লাস রম্নমে শ্রেণীপাঠ নেওয়ার সত্যতা মিলে। শ্রেণী শিÿকরা জানিয়েছেন শিÿার অধিকার বঞ্চিত ২৫ইটভাটা শিশু শ্রমিক এখন স্বউৎসাহে নিয়মিত বিদ্যালয়ে উপস্থিত হন ও শ্রেনী পাঠ গ্রহণ করছেন।         বিদ্যালয়ে নতুন ভর্তি হওয়া এসব ইটভাটা শ্রমিকরা হলেন, জরিনা আক্তার, সুরমা বেগম, ফাতেমা বেগম, খাইরম্ননেচ্ছা, কল্পনা, হিমা, সাবিনা, ছকিনা, আশামনি, সুমাইয়া, সালমা, নাছিরম্নল ইসলাম, নয়নমনি, হালেমা, দিপু, রাকিব, কাউছার, রাজন, কাইছার, ওসমান, শাহ আলম, রামিন, রিমন, মনির খান, সাইফুল ইসলাম। এসময় বিদ্যালয়ে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে দেখে তাদের যথেষ্ট হাস্যোজ্জল দেখা গেছে। শিÿার অধিকার ফিরে পেয়ে তারা আনন্দে উচ্ছাসিত হয়ে ভারী খুশি হওয়ার বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে অকপটে স্বীকার ও প্রকাশ করেন। ওই শিশুদের মধ্যে কয়েকজনের জানান, বিদ্যালয়ে ভর্তি, নতুন স্কুল গমণ আর নতুন বই পেয়ে তারা ভীষণ খুশি। বাধঁভাঙ্গা আনন্দ-উচ্ছাস প্রকাশ করে তারা স্কুলে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করার জন্য পেকুয়ার বর্তমান মহানুভব ইউএনও আর সংশিস্নষ্টদের প্রতি আমত্মরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান। এসময় তারা বিশেষ করে ইউএনও মারম্নফুর রশিদ খাঁন স্যার এর সু’স্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু ও শুভকামনাও করেন।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিÿক বজলুর রহমান জানান, এটি যথেষ্ট ভালো এবং প্রশংসনীয় উদ্যোগ। তারা এতদিন শিÿা সুবিধা বঞ্চিত ছিল। তারপরেও তারা এখন বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় খুব দ্রম্নত ভাবেই তাদের শ্রেণী পাঠ শিখে নিচ্ছে। হয়তোবা একদিন দেখা যাবে এদের থেকেও দেশ, জাতি বা আমরা ভালো কিছু পেতে পারি।

     পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারম্নফুর রশিদ খান এর কাছে জানতে চাইলে বলেন, সচেতন ও দায়িত্বশীল সাংবাদিকদের নির্ভিক ও ÿুরধার লেখনীর মাধ্যমেই যে সমাজ-সভ্যতায় যূগোপযোগী পরিবর্তন ও উন্নয়ন এবং মানুষের মৌলিক নাগরিক অধিকার আর সূযোগ সুবিধার দ্রম্নত বাসত্মবায়ন যে সম্ভব হয় এটিও একটি তার জলমত্ম প্রমাণ। তাদের লেখনীর কারণে এরকম একটা ভালো কাজের সফল বাসত্মবায়ন সম্ভব হল। আমি তাদের লেখনীর সাধুবাদ জানাই। আশাকরি স্বঃ স্বঃ অবস্থান থেকে আমরা যদি এধরনের ভাল কাজের পথ দেখাই লোকজনদের উদ্বুদ্ধ করতে সÿম হই খুব শীঘ্রই আমরা আমাদের সমাজ সভ্যতাকে পাল্টে দিতে সÿম হবো।

 রিপোর্ট »মঙ্গলবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী , ২০১৫. সময়-১২:৪৪ pm | বাংলা- 5 Falgun 1421
WEBSBD.NET
রিপোর্ট শেয়ার করুন  »
Share on Facebook!Digg this!Add to del.icio.us!Stumble this!Add to Techorati!Seed Newsvine!Reddit!
EDITOR;ABUL HOSSAIN LITON, DHAKA OFFICE; NAHAR MONZILl,BOX NAGAR,DEMRA,DHAKA.OFFICE;MAHESHPUR,JHENAIDAH,BANGLADESH. Copyright © 2011 » All rights reserved http/shesherkhobor.com, MOB: 8801711245104,Email:shesherkhobor@gmail.com 
☼ Provided By  websbd.net  » System  Designed by HELAL .
GO TOP