Breaking »

Warning: include(/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

Warning: include(): Failed opening '/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php' for inclusion (include_path='.:/usr/lib/php:/usr/local/lib/php') in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

শার্শা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত

pic-- 19.01.2013ইয়ানুর রহমান, শার্শা (যশোর)ঃ ১৯ জানুয়ারী। উৎসবামুখর পরিবেশে যশোরের শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে স্টেডিয়াম মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আব্দুল হক’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সম্মেলনে উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক এমপি। প্রধান অতিথি বলেন, আওয়ামী লীগ জন্মের পর থেকে মাটি মানুষের জন্য কাজ করেছেন। বিদেশী শাসন ও শোসনের জাতাকলে নিষ্পেশিত হয়ে তারা মুক্তির পথ খুঁজে ছিলেন। ১৯৪৭ সালে দ্বিজাতি তত্বের পর বঙ্গবন্ধু বৃটিশ শাসনের বিরুদ্ধে বাংলা ও বাঙ্গালিকে এক করে ভাষার বিরুদ্ধে লড়েছেন। কিন্তু পাকিসত্মান নামক আরো এক বৃটিশ ভর করে বাংলার মানুষের ওপর। এরপর দীর্ঘ ২৩ বছর লড়াই সংগ্রাম করে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলেন। কিন্তু যুদ্ধাপরাধীদের রাজনীতি করার সুযোগ করতে ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে স্ব পরিবারে হত্যা করে। একই সাথে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নৎসাত করার ষড়যন্ত্রে মেতে ওঠে। কিন্তু বাংলার মানুষের ভালাবাসর কারণে তার কন্যা শেখ হাসিনা দলের দায়িত্ব নিয়ে একটি খুধামুক্ত, অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার জন্য নিরলস পরিশ্রম করছেন। ঠিক এমন এক মুহুর্তে আবারো যুদ্ধাপরাধীরা দেশকে পিছনে ফেলে দিতে চক্রামত্ম করছে। সেই অপশক্তি শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র করছে।

তিনি আরও বলেন, ঐক্যকে সুদৃঢ করে আগামীতে শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে। তবেই দিন বদলের সনদ বাসত্মবায়িত হবে। তিনি বলেন বিগত খালেদা ও তত্বাবধায়ক সরকার দেশকে পিছনে ফেলে দিয়েছিল। চাল, ডালসহ সব কিছুর দাম বাড়িয়ে দিয়েছিল। আর শেখ হাসিনা ক্ষমতা গ্রহণ করার পর দ্রব্যমূল্যের দাম কমিয়ে আনা হয়েছে। মানুষের জীবন যাত্রারমান বাড়ানো হয়েছে। এই ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে আগামীতে আবারো মহাজোট সরকারকে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দিদে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য আলী রেজা রাজু বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচনের পর শেখ আফিল উদ্দিনকে আক্রামত্ম হলে আমরা ছুটে এসেছিলাম। তখন বলেছিলাম যশোরে আসেন আমরা মোকাবিলা করব। তিনি বলেন, ৭২ সালে বঙ্গবন্ধু যশোর সার্কিট হাউজে হাতের ছোঁয়া রয়েছে। সেই ছোঁয়া নিয়ে বেঁচে থাকতে চায়। জীবনের শেষ দিন পর্যমত্ম আওয়ামী লীগের জন্য কাজ করে যেতে চায়। আলী রেজা রাজু বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এলে দেশে খাদ্য স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়। বিদুতের দেখা মেলে। তার নেতৃত্বে সমুদ্র বিজয় করা হয়েছে। তাই এখন বাংলাদেশকে সমুদ্রমাত্রিক দেশ বলা হয়। তিনি আরোও বলেন, ঢাকাকে যানযটমুক্ত করতে অনেকগুলো ফ্লাউওভার নির্মাণ করা হয়েছে। ফলে দীর্ঘদিনের সমস্যা সমাধান করা সম্ভব হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও যশোর-৫ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য খান টিপু সুলতান বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে রাজাকার-আলবদররা সশস্ত্র ছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধু সৈনিকরা তাদের ভয় পায়নি। তাই বিএনপি-জামায়াত যুদ্ধাপরাধীদের কাছে ও মুক্তিযোদ্ধারা ভয় পায় না। এজন্য শেখ হাসিনার নেতেৃত্বে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে এত কোন সন্দেহ নয়। এছাড়া আগামীতেও কোন অপশক্তি মুক্তিযুদ্ধের শক্তিকে পরাসত্ম করতে পারবে না।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও যশোর-১ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন বলেন, ২০০১ সাল থেকে আপনাদের পাশে থেকেছি। কারও মনোবাসনা হয়ত পূরণ করতে পারেনি। কিন্তু ২০০৩ সালে আওয়ামী লীগের মডেল পূর্ণাঙ্গ কমিটি করেছি। দলকে পরিচালনার জন্য উপজেলার সর্বসত্মরের নেতাকর্মীরা আমাকে দায়িত্ব দিলে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছি। প্রতিটি ইউনিয়নে গণতান্ত্রিক পন্থায় কমিটি করেছি। তাদের পরিচিতি অনুষ্ঠান করেছি। যা অতীতে কখনো হয়নি। দলে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে সব নির্বাচনে অংশ নিয়ে সব কটিতে জয়ী হয়েছি। তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার পরামর্শে সমসত্ম শক্তি প্রয়োগ করেছি। তাই বেনাপোলে মেয়র নির্বাচিত হয়েছি। শেখ আফিল উদ্দিন ব্যাক্তি আফিল নয়। শেখ আফিল উদ্দিন নৌকার প্রতীকের আফিল উদ্দিন। তাই আফিলের সাথে নয় বিরোধিতা করলে নৌকা প্রতীকের সাথে বেইমানি করা হবে। যদি দলের সাথে বেইমানি করেন আমি বেঁচে থাকতে ছাড় দেব না। সালাম নেবেন, দেবেন না তা হবে না। নেতা হতে হলে ধৈর্য্য ধরতে হবে।

তিনি আরো বলেন, ৪৬ হাজার ভোট থেকে ২০০১ সালে ৭৫ হাজারে উন্নিত হয়েছে। ২০০৮ সালে ৯৫ হাজার ভোট পায় পেয়েছি। আগামীতে নির্বাচনে ভোট গণণা করা লাগবে না। শেখ হাসিনা মনোনয়ন দিলে সেটা করে দেখাবো ইনশালস্নাহ। আগামীবার শেখ হাসিন কে ÿমতায় আনতেই হবে। কারণ ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে শার্শায় বোবা মানুষকে পর্যমত্ম ছাড় দেয়া হয়নি। তাই শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় এনে সারা দেশের মানুষকে রক্ষা করতে হবে ।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার বলেন, ২০২১ সারের নির্বাচনের পর শার্শা ছিল সন্ত্রাসের রাজত্ব। শেখ আফিল উদ্দিনকে ভোট দেয়ার অপরাধে কারো হাত কেটে নেয়া হতো এবং মানুষের নির্যাতন চালানো হতো। তারেক রহমানের পোষ্য সন্ত্রাসী তৃপ্তির গোন্ডা বাহিনী দিয়ে এই নারকীয় তান্ডব চালানো হতো। সেই সব অত্যাচারের বিরুদ্ধে আমরা প্রতিবাদ সমাবেশ করেছি। শুধু তাই নয়, যশোরের সব উপজেলায় এমন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করা হতো। ওই সন্ত্রাসের জবাব দেয় ২০০৮ সালের নির্বাচনে। জেলার ৬ আসনেই আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়ী হয়। তিরি আরো বলেন,  নির্বাচনের যে ইশতিহার দেয়া হয়েছিল সেটা পূরণ হয়েছে । নতুন প্রজন্ম শেখ হাসিরাকে ম্যান্ডেড দিয়েছিল। আমরা আবারো ঐক্য বদ্ধ থাকরে আবারো মহাজোট সরকার ক্ষমতায় যেতে পারবে। তিনি বিরোধী দলের সমালোচনা করে বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচানোর নামে ঘুমামত্ম মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করছে। সারা দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে দেশকে অশামত্ম করার চেষ্টা করছে। বিএনপির মহাসচিব ৩৭ মামলায় হুকুমের আসামি। বিএনপির সমন্বয়কারী তরিকুর ইসলাম ক্ষমতায গেলে দুর্নীতি মুক্ত দেশ গড়ার কথা বলেন। অথচ তিনি ক্ষমতায় থেকে দুর্নীতির পাহাড় গড়ে তুলেছিলেন।

বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ কমিটির সহ-সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা আব্দুল মজিদ বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা বাংলার মানুসের জন্য কাজ করছেন। ইতোমধ্যে যশোরকে ডিজিটাল জেলা হিসেবে ঘোষণা করেন। যার সুবিধা পাচ্ছে এ জেলা মানুষ।

বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ঝিকরগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরম্নল ইসলাম মনির।

আরও বক্তব্য রাখেন, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মীর জহুরুল ইসলাম, শার্শা উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মিন্নু, কেন্দ্রীয় যুবলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক বেনাপোল পৌরসভার মেয়র আশরাফুল আলম লিটন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আলী আনু, বেনাপোল পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও শার্শা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি খান টিপু সুলতান, সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন. ফিরোজ, আলী রায়হান, হায়দার গণি খান পলাশ. এস এম আফজাল হোসেন, মুজিবুদ্দৌলা কনক, খয়রাত হোসেন, আসাদুজ্জামান, সেতারা খাতুন, এসএম আসিফ-উদ-দ্দেলৈা অলক, যুব ও ক্রীড়া মুকুল, ফারুক আহম্মেদ কচি, সদস্য রেজা, আবুল হোসেন খান, শাহারুল ইসলাম, ইমাম হাসান লাল, মোসত্মফা ফরিদ আহম্মদ চৌধুরী, মাহমুদ হাসান বিপু, গোলাম মোসত্মফা, রিয়াদ, বিপুল প্রমুখ।

 রিপোর্ট »রবিবার, ২০ জানুয়ারী , ২০১৩. সময়-১০:১৩ pm | বাংলা- 7 Magh 1419
WEBSBD.NET
রিপোর্ট শেয়ার করুন  »
Share on Facebook!Digg this!Add to del.icio.us!Stumble this!Add to Techorati!Seed Newsvine!Reddit!
EDITOR;ABUL HOSSAIN LITON, DHAKA OFFICE; NAHAR MONZILl,BOX NAGAR,DEMRA,DHAKA.OFFICE;MAHESHPUR,JHENAIDAH,BANGLADESH. Copyright © 2011 » All rights reserved http/shesherkhobor.com, MOB: 8801711245104,Email:shesherkhobor@gmail.com 
☼ Provided By  websbd.net  » System  Designed by HELAL .
GO TOP