Breaking »

Warning: include(/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

Warning: include(): Failed opening '/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php' for inclusion (include_path='.:/usr/lib/php:/usr/local/lib/php') in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

কোটচাঁদপুরে নির্যাতনের ৫ দিন পর রুম্পার মৃত্যু

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি ঃ

কোটচাঁদপুর উপজেলার লক্ষ্মীকুন্ডু গ্রামের স্বামী নাসিরের নির্যাতনের শিকার পিতৃহারা সেই কলেজ ছাত্রী রুম্পা নামের মেয়েটি হাসপাতালে ৫দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে গতকাল সোমবার ভোরে মারা গেছে। মৃত্যুর সংবাদ লক্ষীকুন্ডু গ্রামে পৌছানোর সাথে সাথে মৃতের শ্বাশুড়িসহ পরিবারের লোকজন বাড়ী ছেড়ে পালিয়েছে। পরে এলাকাবাসী রুম্পা’র স্বামী’র ঘর থেকে ধান চাউল ও গোয়াল থেকে গরু ছাগল বের করে রুম্পার মায়ের ঘরে এনে রেখেছে। মাত্র তিন মাস আগে রহিমা খাতুন রুম্পার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্বামী ও শ্বাশুড়ি’র অব্যাহত অমনবিক নির্যাতন চালাতে থাকে। গত ৫ ডিসেম্বর শারীরিক নির্যাতনের এক পর্যায়ে জোরপূর্বক পাষন্ড স্বামী রুম্পার মুখে বিষ ঢেলে দেয়। ওই রাতেই তাকে কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার পরের দিন ৬ ডিসেম্বর রুম্পার মা আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে কোটচাঁদপুর থানায় স্বামী নাসিরসহ ৪ জনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করে (নং-৪, তাং- ৬/১২/১২)। পুলিশ ওই দিন নাসিরকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়। সেই থেকে নাসির জেল হাজতে রয়েছে। গতকাল কোটচাঁদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনির উদ্দীন মোল্লা এবং তদন্তকারী কর্মকর্তা ইমরান হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

প্রসঙ্গতঃ কোটচাঁদপুর উপজেলার লক্ষ্মীকুন্ডু গ্রামের মৃত সমশের আলী খানের মেয়ে রুম্পা। রুম্পার আপন ফুপাতো ভাই নাসির। নাসিরের পিতা কাদের খানের বাড়ী যশোরের বসুন্দিয়া গ্রামে। রুম্পার ফুফুর বিবাহ বিচ্ছেদের কারণে সে (ফুফু) অনেক আগে থেকে ছেলে নাসিরকে নিয়ে কোটচাঁদপুরের লক্ষ্মীকুন্ডু গ্রামে পিত্রালয়ে বসবাস করে আসছে। সে কারণে একই বাড়িতে বেড়ে ওঠে নাসির ও রুম্পা। এরই মধ্যে রুম্পা ও নাসিরের মধ্যে অবৈধ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে রুম্পা সন্তান সম্ভাবা হয়ে পড়ে। এ সময় রুম্পা নাসিরকে বিয়ের কথা বললে নাসির কৌশলে একটি ক্লিনিকে ভর্তি করে অপারেশনের মাধ্যমে রুম্পার ৫ মাসের সন্তান ড্রেনে ফেলে দিয়ে তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় নাসির । শেষ পর্যন্ত বিষয়টি এলাকায় ব্যাপক জানাজানি হয়ে পড়লে এলাকাবাসী নাসিরকে ধরে মাত্র ৩ মাস আগে তাদের বিয়ে দিয়ে রুম্পাকে নাসিরের ঘরে তুলে দেয়। এ বিয়ের পর থেকেই নাসির রুম্পাকে তালাক দেয়ার জন্য বিভিন্ন ফন্দি ফিকির করতে থাকে। প্রায়ই শারীরিক ভাবে রুম্পার উপর নির্যাতন চালায় স্বামী নাসির ও শ্বাশুড়ি। এমনকি নাসির তার শ্বাশুড়ি আনোয়ারা বেগমকেও কয়েকবার মারধর করে আহত করেছে। স্বামী ও শ্বাশুড়ি’র অব্যাহত নির্যাতনের এক পর্যায়ে তার মুখে জোরপূর্বক বিষ ঢেলে দেয়। পরে তাকে কোটচাঁদপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এখানে তিন দিন রাখার পর রুম্পা’র অবস্থা আরো খারাপ হতে থাকলে তাকে ৯ ডিসেম্বর যশোর আড়াইশ’ বেড হাসপাতালে ভর্তি করা হলে গতকাল ভোরে রুম্পা মারা যায়। এ খবর পাওয়ার পর এ প্রতিবেদক ঘটনাস্থলে গেলে এলাকাবাসী জানায়, এক সময়ের চরমপন্থি দলের সক্রিয় সদস্য এলাকার দিয়ানত আলী খানের ছেলে সিরাজ ও মৃত মতলেব খানের ছেলে আয়ুব হোসেনের সাগরেদ এই নাসির। নাসির তার স্ত্রীর উপর অত্যাচার করলে প্রতিবেশী কেউ কিছু বলতে গেলে সিরাজ ও আয়ুব তাদের হুমকি ধামকি দিত। যে কারণে ভয়ে কেউ আর কিছু বলতো না। সে কারণে রুম্পা’র এই পরিণতির পিছনে সিরাজ ও আয়ুবকে দায়ী করে এলাকাবাসী এ দু’জনকেও গ্রেফতারের দাবী জানান। প্রতিবেশী তবিবর রহমান জানান, রুম্পা উপজেলার সাবদালপুর এসডি কলেজে’র এইচ এস সি’র ২য় বর্ষের ছাত্রী। রুম্পারা ৭ বোন, ১ ভাই, এর মধ্যে রুম্পা চতুর্থ। রুম্পা’র পিতা ছিলো হত দরিদ্র, ৯ বছর আগে সে মারা যায়। খুবই শান্ত স্বাভাবের ও ভাল মেয়ে রুম্পা, তার সরলতার সুযোগ নিয়ে ও বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে এমন জঘন্য ক্ষতিটি করেছে শয়তান নাসির, ওর শাস্তি হওয়া দরকার। পাশের বাড়ীর মিতা ও রুম্পা একই সাথে ও একই কলেজে পড়ত। মিতা’র চোখে পানি ছলছল করছিলো। সে বলে, রুম্পা আমার একজন ভাল বান্ধবী ছিলো। কিন্তু তাকে বাঁচতে দেয়নি ওই পাষন্ড নাসির।

 রিপোর্ট »সোমবার, ১০ ডিসেম্বার , ২০১২. সময়-৯:৪০ pm | বাংলা- 26 Agrohayon 1419
WEBSBD.NET
রিপোর্ট শেয়ার করুন  »
Share on Facebook!Digg this!Add to del.icio.us!Stumble this!Add to Techorati!Seed Newsvine!Reddit!
EDITOR;ABUL HOSSAIN LITON, DHAKA OFFICE; NAHAR MONZILl,BOX NAGAR,DEMRA,DHAKA.OFFICE;MAHESHPUR,JHENAIDAH,BANGLADESH. Copyright © 2011 » All rights reserved http/shesherkhobor.com, MOB: 8801711245104,Email:shesherkhobor@gmail.com 
☼ Provided By  websbd.net  » System  Designed by HELAL .
GO TOP