Breaking »

Warning: include(/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

Warning: include(): Failed opening '/home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single-sidebar.php' for inclusion (include_path='.:/usr/lib/php:/usr/local/lib/php') in /home/shesherk/public_html/wp-content/themes/shesherkhobor/single.php(2) : eval()'d code(1) : eval()'d code on line 2

ঠাকুরগাঁওয়ে চুন উৎপাদন শিল্প,অনেকেই পেশা বদলে বাধ্য হচ্ছে

শাকিল আহম্মেদ, ঠাকুরগাঁও ঃ

পান অন্যতম প্রাচীন প্রিয় একটি খাদ্য, লোক সংস্কৃতির একটি  গুরুত্বপূর্ন উপাদান। নিঃশ্বাসকে সুরভিত করা ও ঠোঁট-জিহবাকে লাল করার জন্য মানুষ পান খায়। কেবল স্বভাব হিসাবেই নয়, বাংলাদেশে ঐতিহ্যগত ভাবে সামাজিক রীতি, ভদ্রতা এবং আচার আচরনের অংশ হিসাবে পানের ব্যবহার  চলে আসছে। পান যেন এই অঞ্চলের জীবনবোধের উৎসে নির্বাচিত এক বিশেষ উপাদান। আর পান সুস্বাদু করার অপরিহার্য্য উপাদান হলো চুন।

পান খেতে চুন লাগে, এ কথাটি সবাই জানলেও চুন কি ভাবে তৈরী হয় তা কিন্তু অনেকেরই জানা নেই। তাহলে কিভাবে পান খাওয়ার চুন তৈরী হয় ? চুন তৈরীর প্রধান উপাদান হলো ঝিনুক। ঝিনুক দুই খোলক বিশিষ্ট অমেরুদন্ডী জলজ প্রাণী। চুন তৈরীর জন্য প্রথমে ঝিনুক সংগ্রহ করে তা বাড়ীতে এনে খড়কুটা বেছে পরিস্কার করতে হয়। এর পর চুলি­তে (ঝিনুক পোড়ানের এক প্রকার চুলা) খড়, কাঠের টুকরা ও ঝিনুক পর্যায়ক্রমে সাজিয়ে আগুন দিতে হয়। কাঠ ভালভাবে জ্বলতে চুলি­র মুখে বাতাস দিতে হয়। এভাবে ৩/৪  ঘন্টা জ্বললে ঝিনুক পুড়ে সাদা রং ধারন করে। পোড়া ঝিনুকগুলো নামিয়ে চালুনির মাধ্যমে ছেকে নষ্ট ঝিনুক গুলো আলাদা করতে হয়। পরবর্তীতে পোড়া ঝিনুকগুলো  চুর্ণ বিচুর্ণ করে মাটির পোনায় গরম পানির সাথে মিশিয়ে নিতে হয়। বাঁশের হাতা দিয়ে ১৫/২০ মিনিট ঘুটলে চুনের সাদা রং বেড়িয়ে আসে, পূর্ণতা পায় ঝিনুকের তৈরী পানে খাওয়া চুন। ধবধবে সাদা করতে চুনের সাথে বিচি কলার রস চুনের সাথে মিশাতে হয়। এরপর তা জালের মাধ্যমে ছেকে বিভিন্ন মাপে আলাদা করে কলার পাতা মুড়িয়ে বিভিন্ন হাটবাজারে বিক্রির জন্য ছুটে যান চুন শিল্পের কারিগররা। অনেকে তাদের ডাকেন চুনরী বলে, আর স্থানীয় ভাষায় জুগী।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের কাচনা সাহাপাড়ায় চুন শিল্পের কারিগর জুগীদের বাস। কিন্তু তাদের জীবন আজ অনেকটা থেমে যাওয়ার উপক্রম। পূর্ব পুরুষের ঐতিহ্যগত  চুন তৈরীর ব্যবসা থেকে উর্পাজিত টাকায় কোন রকমে চলছে এদের জীবন।

পবিত্র দেবনাথের স্ত্রী মনিকা রানী (৪০) জানান, ভোর বেলা থেকে রাইত পর্যন্ত অনেক কষ্ট করে যেই টাকা কামাই করি ওই টাকা দিয়া সংসারের খরচেই হয়না। মানুষের কাছত ধার নিয়া চলিবা হয়। ছুয়ালাকো ভালো করে পড়াবা পারিনা অভাবের কারণে।

ধনেশ দেবনাথ (৫৫) জানান, বাপ-দাদার সময় থেকে চুন তৈরীর কাজ করে আসছেন। বর্তমানে খাল-বিল, নদী-নালায়  ঝিনুক না পাওয়া যাওয়ায় গড়েয়া, খানসামা থেকে বস্তা প্রতি তিনশত টাকা দরে ঝিনুক কিনে আনতে হয়। ফলে উৎপদিন খরচ বেড়ে যায়। চুনের বর্তমান বাজার দর প্রতি মণ ৪৮০ টাকা। যে লাভ হয় তাতে সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়ে। লোকসানে সামলাতে অনেকে এই জাত পেশা ছেড়ে চলে যাচ্ছে অন্য পেশায়। তিনি সংশয় প্রকাশ করে বলেন, আমরা আর কতদিন এ পেশায় টিকে থাকতে পারবো তা ভগবানই জানেন। তাই ছেলে মেয়েদের শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে চেষ্টা করছি।

রায়পুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুরুল হক জানান, ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলার কাচনাসহ চোদ্দ হাতকালী, রুহিয়া, রানীশংকৈল উপজেলার জগদল, বন্দর,বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার লাহিড়ী , মহেশপুর গ্রামের চুন শিল্পের কারিগরদের একই অবস্থা। চুন তৈরীর কাঁচামাল ঝিনুক হাতের কাছের জলাশয় গুলোতে না পাওয়ায় এবং পাথর চুনের ব্যবহার বেড়ে যাওয়াসহ নানা প্রতিকুলতার মাঝে পূর্ব পুরুষের জাত  পেশা বদলে তারা মরিয়া হয়ে উঠেছেন । এভাবেই পতন হচ্ছে পূর্ব পুরুষের জাত ব্যবসা। হারিয়ে যাচ্ছে দেশের প্রাচীন ঐতিহ্যের স্মৃতি বহনকারী চুন শিল্প। এ শিল্প বাঁচিয়ে রাখতে জুগিদের সহজ শর্তে ঋণ দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

 রিপোর্ট »মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বার , ২০১২. সময়-১১:৪৫ pm | বাংলা- 10 Ashin 1419
WEBSBD.NET
রিপোর্ট শেয়ার করুন  »
Share on Facebook!Digg this!Add to del.icio.us!Stumble this!Add to Techorati!Seed Newsvine!Reddit!
EDITOR;ABUL HOSSAIN LITON, DHAKA OFFICE; NAHAR MONZILl,BOX NAGAR,DEMRA,DHAKA.OFFICE;MAHESHPUR,JHENAIDAH,BANGLADESH. Copyright © 2011 » All rights reserved http/shesherkhobor.com, MOB: 8801711245104,Email:shesherkhobor@gmail.com 
☼ Provided By  websbd.net  » System  Designed by HELAL .
GO TOP